কংগ্রেসের দখলে গেল কর্ণাটক

প্রকাশিত: ৩:০১ অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০২৩

 

ক্ষমতাসীন বিজেপির হাতছাড়া হলো কর্ণাটক। কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসভরাজ বোমাই রাজ্যটিতে বিজেপির পরাজয় স্বীকার করেছেন। দেশটির স্থানীয় সময় দুপুর পর্যন্ত রাজ্যের ২২৪টি আসনের মধ্যে কংগ্রেস ১৩১ টি আসনে এগিয়ে আছে। অপরদিকে ক্ষমতাসীন বিজেপি ৬৫ আসনে এগিয়ে আছে। খবর এনডিটিভির।

দৈনিক ইত্তেফাকের সর্বশেষ খবর পেতে Google News অনুসরণ করুন
ভোটের ফল প্রসঙ্গে বোমাই বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী এবং বিজেপি কর্মীদের প্রচেষ্টা সত্ত্বেও আমরা দাগ কাটতে পারিনি। পূর্ণাঙ্গ ফল প্রকাশ হলেই আমরা পর্যালোচনা করব।

কর্ণাটকে শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় বিধানসভা ভোটের গণনা। গত বুধবার বিধানসভা ভোটে মোট ৭৩.২ শতাংশ ভোট পড়েছিল। ২০১৮ সালেও ভোটের হার ছিল প্রায় একই।

কর্ণাটক হলো কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গের রাজ্য। তিনি এখানে মাটি কামড়ে পড়েছিলেন। রাহুল গান্ধীও কর্ণাটকে ১২ দিন সময় দিয়েছেন। প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ২৬টি জনসভা ও রোড শো করেছেন। সোনিয়া গান্ধী পর্যন্ত অনেকদিন পর ভোটের প্রচারে নামেন।

সবচেয়ে বড় কথা কর্ণাটকে কংগ্রেসের রাজ্য নেতারা খুবই শক্তিশালী। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি শিবকুমার খুবই দক্ষ সংগঠক। সাবেক মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধারামাইয়ার জনভিত্তি আছে। ভোটের আগে বিজেপি-র সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জগদীশ শেট্টার এবং উপমুখ্যমন্ত্রী সাভাড়ি কংগ্রেসে যোগ দিয়েছিলেন এবং ভোটে লড়েছেন।

অন্যদিকে বিজেপি-র প্রচারে সবচেয়ে বড় মুখ ছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। তিনি ও অমিত শাহ সবচেয়ে বেশি জনসভা ও রোড শো করেছেন। তবে শেষমেশ রাজ্যটি ক্ষমতাসীনদের কাছ থেকে হাতছাড়া হলো।

আন্তর্জাতিক/আবির